ঢাকা২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি ৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থ বানিজ্য
  2. আইন আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আবহাওয়া
  5. ইসলাম
  6. এভিয়েশন
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলা
  9. জব মার্কেট
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশবাংলা
  13. বিনোদন
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল
বিজ্ঞাপন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুরি করে সরকার দেশকে ফোকলা করেছে: ফখরুল

জনবার্তা প্রতিবেদন
সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২৩ ১২:৫২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চুরি করে সরকার দেশকে ফোকলা করেছে এমন মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘সরকার শুধু দ্রব্যমূল্য কমাতে ব্যর্থ হয়েছে তা নয়। রাষ্ট্র পরিচালনাতেও ব্যর্থ সরকার। এত বড় চোর যে, চুরি করে দেশকে তারা ফোকলা করে দিয়েছে।’

আজ রবিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) তারুণ্যের রোডমার্চ কর্মসূচির দ্বিতীয় দিন বগুড়ার চারমাথা এলাকায় সংক্ষিপ্ত সমাবেশে এসব কথা বলেন তিনি। জাতীয়তাবাদী যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদল আয়োজিত রোডমার্চ বগুড়া থেকে শুরু হয়ে রাজশাহীতে শেষ হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার সব চুরি করে আর বিদেশে পাঠায়। বিদেশে বাড়ি-ঘর তৈরি করে। আর সবচেয়ে বড় চুরি করেছে-আমার ভোটের অধিকার। ১৪ তে চুরি করেছে, ১৮ তে চুরি করেছে। এখন আবার পাঁয়তারা করছে ২০২৪ এর নির্বাচনে চুরি করে পার হয়ে যাবে।

‘আজকে স্বাধীনতার বায়ান্ন বছর পরে আমাদের আবার সংগ্রাম করতে হচ্ছে, লড়াই করতে হচ্ছে কেন? আমাদের অধিকারের জন্য। ভোটের অধিকার, ভাতের অধিকার; বেঁচে থাকার অধিকার। ভাতের অধিকার বললাম কারণ, চাল-ডাল-তেল-লবণ সব কিছুর দাম আকাশচুম্বী। আমার মা-বোনেরা তাদের ছেলে-মেয়েদের একটা ডিম দিতে পারে না। বিদ্যুতের দাম তিন-চার বার করে বাড়ছে। তেলের দাম তিন-চার বার করে বাড়ে। সেদিকে সরকারের কোনো খেয়াল নেই। বলে দাম তো ফিক্স করে দিয়েছি—দাম ফিক্স করলেই কি দাম কমানো যায়? চুরি তো করো তোমরা। চুরি করো আর বলো দাম ফিক্স করেছি।’-বলেন বিএনপি মহাসচিব।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার সব কিছু চুরি করছে। জনগণের ভোটাধিকার চুরি করে ২০২৪ সালে আবারও একতরফা নির্বাচনের পাঁয়তারা করছে। তিনি (শেখ হাসিনা) থাকলে নাকি ভালো নির্বাচন হয়, শেয়ালের কাছে মুরগি দিলে কি হয় তা সবাই জানে!

বিএনপি মহাসচিব অভিযোগ করে বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে রেখে মারতে চায় সরকার। বিরোধীদল যেন নির্বাচনে অংশ নিতে না পারে, সেজন্য আগে থেকেই নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এবার আর তা হতে দেওয়া হবে না। মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে, সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সরকারকে সরিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

দ্বিতীয় দিন বগুড়া থেকে সান্তাহার ও নওগাঁ হয়ে রাজশাহীর মোট ১৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত রোডমার্চ করবে বিএনপির তিন সহযোগী সংগঠন যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদল। কর্মসূচিতে এই তিন সংগঠনের পাশাপাশি বিএনপির অনেক নেতাকর্মীও অংশ নিয়েছেন।