ঢাকা১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থ বানিজ্য
  2. আইন আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আবহাওয়া
  5. ইসলাম
  6. এভিয়েশন
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলা
  9. জব মার্কেট
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশবাংলা
  13. বিনোদন
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল
বিজ্ঞাপন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা প্রবাসীর স্ত্রী, শ্বশুরের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

জনবার্তা প্রতিবেদন
জুলাই ১, ২০২৪ ২:৫৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ফরিদপুরে প্রবাসীর স্ত্রী শ্বশুরের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ায় অভিযুক্ত শ্বশুরকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। জরিমানার এক লাখ টাকা ওই গৃহবধূকে দেওয়া হবে।

সোমবার (১ জুলাই) দুপুর দেড়টার দিকে এ রায় দেন ফরিদপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান।

দণ্ডপ্রাপ্ত ওই ব্যক্তির নাম রেজাউল মিয়া (৫৩)। তিনি ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নের মোবারকদিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

আদালত ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ২০১১ সালে প্রেম করে বোয়ালমারী উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামের এক যুবককে বিয়ে করেন ওই গৃহবধূ (৩১)। ওই ঘরে তাদের দুইজন শিশু সন্তান রয়েছে। ২০২০ সালের শুরুর দিকে জীবিকার তাগিদে দুবাই যান স্বামী। এরপর থেকেই ওই গৃহবধূর শ্বশুর রেজাউল মিয়া তাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। ২০২১ সালের ৪ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টার দিকে ওই গৃহবধূ তার ঘরে শুয়েছিলেন। তখন তার কক্ষে ঢুকে শ্বশুর রেজাউল দরজা আটকে দিয়ে তার এক নাতির গলায় ছুরি ধরে পুত্রবধূকে ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করেন। এরপর আরও কয়েকবার একইভাবে তাকে ধর্ষণ করা হয়। এর ফলে ওই গৃহবধূ অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ ২০২২ সালের ২০ এপ্রিল বোয়ালমারী থানায় মামলা করতে গেলে থানা থেকে আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেওয়া হয়। পরদিন ২১ এপ্রিল শ্বশুরকে একমাত্র আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আদালতে মামলা করেন।

মামলাটি তদন্ত করে ২০২৩ সালের ১৩ জানুয়ারি রেজাউল মিয়াকে একমাত্র আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ফরিদপুরের পরিদর্শক মো. জালাল উদ্দীন সরদার।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ওই আদালতের পিপি স্বপন পাল বলেন, এ রায়ে আমরা সন্তুষ্ট। এ রায় সমাজে বার্তা দেবে অপরাধ করে কেউ পার পাবে না। এতে দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হবে।