ঢাকা১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১২ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থ বানিজ্য
  2. আইন আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আবহাওয়া
  5. ইসলাম
  6. এভিয়েশন
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলা
  9. জব মার্কেট
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশবাংলা
  13. বিনোদন
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল
বিজ্ঞাপন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বক্তৃতা ছেড়ে মাঠে নামেন: নেতাদের গয়েশ্বর

জনবার্তা প্রতিবেদন
জুন ২৯, ২০২৪ ৬:২৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে নেতাদের বক্তৃতা ছেড়ে মাঠে নামার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘পদের জন্য আসবেন, বক্তৃতা দিয়ে চলে যাবেন তাতে হবে না। বক্তৃতায় মুক্তি মিলবে না। কারণ বক্তৃতায় দেশ স্বাধীন হয়নি। যুদ্ধ করতে হয়েছে।’

শনিবার (২৯ জুন) বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি আয়োজিত সমাবেশে এসব কথা বলেন তিনি। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এই সমাবেশ করছে দলটি।

বৃষ্টি উপেক্ষা করে নির্ধারিত সময়ে সমাবেশস্থলে আসায় নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে গয়েশ্বর বলেন, ‘আপনাদের ধন্যবাদ জানাই এতো কষ্ট করে সবাই উপস্থিত হয়েছেন এজন্য। আজ থেকে নেত্রীর মুক্তির আন্দোলন শুরু হলো। অতীতে আমরা একাধিকবার বলেছি কিন্তু তিনি আজও মুক্তি পাননি। অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তিনি জামিন পান না। জামিন পান খুন ও মৃত্যুদণ্ডের আসামি। কোনো কারণ ছাড়াই শেখ হাসিনাকে খুশি করার জন্য খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রায় দেওয়া হয়েছে। তাকে জামিন দিচ্ছে না।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, প্রধানমন্ত্রী সাংবিধানিক ৪০২ ধারা দিয়ে নির্বাহী আদেশে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়েছেন। নেত্রীকে মুক্ত করতে হলে লাগবে আন্দোলন।

নেতাদের উদ্দেশে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘মঞ্চে জায়গা না পেলে, বক্তৃতা না দিলে আমরা অনেকে মন খারাপ করি। কিন্তু আমাদের নেত্রী সাতবছর ধরে মঞ্চে আসেন না। তার কন্ঠ দেশবাসী শোনেন না। তার চেয়ে কী আপনার আমার বক্তব্য দেওয়া খুব জরুরি হয়ে গেছে?’

বিএনপির এই নেতা আরও বলেন, খালেদা বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদের হার্ট। তাকে তাড়াতাড়ি মুক্ত করতে না পারলে বাংলাদেশ মানচিত্র থেকে মুছে যাবে। আজকে সরকার যেসব চুক্তি ভারতের সঙ্গে করেছে তাতে আমরা উদ্বিগ্ন। আমরা ভারত বিদ্বেষী নই। আমরা বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের পক্ষে। এই লড়াই গণতন্ত্রের লড়াই। খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা মানেই বাংলাদেশ ও গণতন্ত্রকে মুক্ত করা।