ঢাকা১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থ বানিজ্য
  2. আইন আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আবহাওয়া
  5. ইসলাম
  6. এভিয়েশন
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলা
  9. জব মার্কেট
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশবাংলা
  13. বিনোদন
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল
বিজ্ঞাপন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

যেভাবে সংরক্ষণ করলে পাকা আম খাওয়া যাবে পুরো বছর

জনবার্তা প্রতিবেদন
জুন ৫, ২০২৪ ৩:১৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চলছে আমের মৌসুম। চারদিক এখন পাকা আমে সয়লাব। কিন্তু কয়েকদিন পরেই এই আম আর বাজারে পাওয়া যাবে না। তখন পাকা আমের মধুর স্বাদ নিতে আমাদের সবাইকে অপেক্ষা করতে হবে দীর্ঘ এক বছর। মিষ্টি ও রসালো এই ফলটি পছন্দ করে ছোট-বড় সবাই। পুষ্টিগুণের দিক থেকেও আম অন্যান্য ফলের থেকে সেরা। কিন্তু মন খারাপ করা বিষয় হলো, সুস্বাদু এই ফলের মৌসুম শেষ হয়ে গেলে আমাদেরকে অপেক্ষা করতে হয় আবার এক বছর। কারণ পাকা আম দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করার উপায় অনেকেরই জানা নেই।

কিছু উপায় রয়েছে যেগুলো মেনে খুব সহজেই পাকা আম সংরক্ষণ করা যায় প্রায় এক বছর পর্যন্ত। এখন থেকে চাইলে আপনিও সারা বছর এই কৌশল অবলম্বন করে আম খেতে পারবেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক সারা বছর আম সংরক্ষণ করা পদ্ধতিগুলো।

জিপলক ব্যাগে সংরক্ষণ
প্রথমে বেছে বেছে পাকা ও দাগমুক্ত আম নিন। যেসব আমে আঘাত লেগেছে বা ফেটে গেছে সেগুলো বাদ দিন। কারণ এ ধরনের আম সংরক্ষণ করলেও তা বেশিদিন ভালো থাকে না। এবার আমগুলো পরিষ্কার পানিতে ভালো করে ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে নিন। খোসা ছাড়ানোর পর আর ধোয়ার দরকার নেই। খোসা ছাড়ানো আমগুলো ছোট ছোট টুকরা করে কেটে নিন। এবার একটি জিপলক ব্যাগে রাখুন। একসঙ্গে অনেকগুলো টুকরা না রেখে কয়েকটি করে রাখুন। এবার ব্যাগের মুখ বন্ধ করে একটি বাটিতে ঢুকিয়ে ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন। এভাবে সংরক্ষণ করলে সারা বছরই ভালো থাকবে।

আস্ত আম সংরক্ষণ
আপনি যদি আস্ত আম সংরক্ষণ করতে চান তবে সেটিও সম্ভব। সেজন্য প্রথমে আপনাকে একটি কাগজের পরিষ্কার ব্যাগ নিতে হবে। এবার তাতে যে আমগুলো সংরক্ষণ করতে চান, সেগুলো সাজিয়ে রাখুন। কাগজের ব্যাগটি একটি কাপড়ের ব্যাগে রেখে মুখ বন্ধ করে দিতে হবে। ব্যাগটি একটি পলিথিন ব্যাগে রাখতে হবে। এবার সেই ব্যাগটি রেখে দিন ডিপ ফ্রিজে। এভাবে সংরক্ষণ করলে আম দীর্ঘদিন ভালো থাকবে।

আইস পদ্ধতি
এই পদ্ধতির জন্য প্রথমে আমগুলোকে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে নিতে হবে। এরপর বরফ বা আইসক্রিম জমানোর পাত্রে টুকরোগুলো জমিয়ে নিন। জমে যাওয়ার পর আমের টুকরোগুলো ফ্রিজ থেকে বের করে জিপলক ব্যাগে ঢুকিয়ে নিন। এরপর ব্যাগটি একটি বাটিতে রেখে মুখ বন্ধ করে দিন। এবার সেই বাটি রাখুন ডিপ ফ্রিজে। এভাবে রাখলে সারা বছর সুস্বাদু আম খেতে পারবেন।

আমের পাল্প সংরক্ষণ
পাকা আম খোসা ছাড়িয়ে ব্লেন্ড করে নিন। এবার সেই পাল্প ডিপ ফ্রিজে জমিয়ে নিন। এরপর জমে যাওয়া আমের পাল্প জিপলক ব্যাগে ভরে ডিপ ফ্রিজে সংরক্ষণ করুন। এটিও প্রায় এক বছর সংরক্ষণ করতে পারবেন। এই পাল্প দিয়ে লাচ্ছি, স্মুদি, পুডিং, জুস, আইসক্রিম মজাদার যে কোন খাবার তৈরি করতে পারবেন।

সংরক্ষণের জন্য বেশি পাকা আম নেবেন না। খানিকটা শক্ত ও খোসায় কোনো দাগ নেই এমন আম বাছাই করুন। অতিরিক্ত পাকা আম সংরক্ষণ করতে চাইলে পিউরি করে তারপর সংরক্ষণ করবেন। আম সংরক্ষণের ক্ষেত্রে সবসময় ছোট বক্স বা ছোট জিপলক ব্যাগ ব্যবহার করবেন। এতে প্রয়োজন মতো বের করে নেয়া যাবে। নাহলে অল্প একটু আম প্রয়োজন হলে পুরো বক্সই ডিফ্রস্ট করতে হবে। এতে আমের স্বাদ নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এছাড়া চাইলে মোরব্বা, আমসত্ত্ব কিংবা আচার বানিয়েও আম সারা বছর খেতে পারেন।