ঢাকা১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১১ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থ বানিজ্য
  2. আইন আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আবহাওয়া
  5. ইসলাম
  6. এভিয়েশন
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলা
  9. জব মার্কেট
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশবাংলা
  13. বিনোদন
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল
বিজ্ঞাপন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সন্তান ছেলে নাকি মেয়ে দেখতে স্ত্রীর পেট কাটলেন স্বামী

জনবার্তা প্রতিবেদন
মে ২৫, ২০২৪ ২:১৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

স্ত্রী গর্ভবতী। স্বামী জানতে চান ছেলেসন্তান আসছে নাকি মেয়ে। এ নিয়ে বাকবিতণ্ডায় স্ত্রীর পেট চাকু দিয়ে কেটে ফেলেন স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত ওই পাষণ্ড ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন।

জানা গেছে, অভিযুক্ত স্বামী পান্না লাল রাজ্যের বাড়াউনের সিভিল লাইনসের বাসিন্দা। তার স্ত্রী অনিতা ৮ মাসের গর্ভবতী। তাদের ৫ কন্যাসন্তান রয়েছে। তবে ছেলেসন্তানের জন্য পান্না প্রায়ই তার স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করতেন। ছেলেসন্তান জন্ম দেওয়ার জন্য প্রায়ই তালাকের হুমকি দিতেন। এই সমস্যার কথা তাদের পরিবারও জানত। তারা তা সমাধানের চেষ্টাও করেছে একাধিকবার।

ঘটনার দিনও স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে স্বামী পান্না অনিতার পেট কাটার জন্য উদ্যত হলে উপায় না দেখে পালানোর চেষ্টা করেন অনিতা। কিন্তু তাকে ধরে চাকু দিয়ে আঘাত করে পান্না। এতে তার নাড়ি ভুড়ি বেরিয়ে ঝুলে যায়।

পরিবারের লোকজন অনিতাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে বেঁচে যায় সে, তবে বাঁচানো যায়নি অনাগত সেই সন্তানকে। জানা গেছে, এবার তাদের ছেলে হওয়ার কথা ছিল।

তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে পান্না লাল। তার দাবি ছিল, স্ত্রীর ভাইয়ের সঙ্গে জমি নিয়ে ঝামেলা থাকায় তাকে ফাঁসাতে এমন কাণ্ড করা হয়েছে। কিন্তু আদালতে অভিযোগের সত্যতা ও প্রমাণ পাওয়ায় পান্নাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন।