ঢাকা২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থ বানিজ্য
  2. আইন আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আবহাওয়া
  5. ইসলাম
  6. এভিয়েশন
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলা
  9. জব মার্কেট
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশবাংলা
  13. বিনোদন
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল
বিজ্ঞাপন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সারা দেশে প্রশাসনকে ব্যবহার করে দমন-পীড়ন চালানো হচ্ছে: প্রিন্স

জনবার্তা প্রতিনিধি
জানুয়ারি ১৮, ২০২৩ ১২:২১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সরকার সারা দেশে প্রশাসনকে ব্যবহার করে দমন-পীড়ন চালাচ্ছে অভিযোগ করে বিএনপির দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত ও সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বলেছেন, ‘কর্মসূচি পালনে বাধা দিতে চক্রান্ত অব্যাহত রেখেছেন ক্ষমতাসীনরা৷’

নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আজ মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দ এমরান সালেহ এসব কথা বলেন।

এমরান সালেহ প্রিন্স বলেছেন, ‘স্বাধীনভাবে রাজনীতি ও রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করার অধিকার সাংবিধানিকভাবে স্বীকৃত। সরকারের মন্ত্রী নেতারা হর-হামেশায়ই বলেন- দেশে সকলের রাজনীতি করবার অধিকার রয়েছে। বিদেশিদের সামনে তারা বলেন, বিরোধী দলের কর্মসূচি পালনে সরকার নাকি সর্বাত্মক সহযোগিতা করে থাকে। সরকারের এই বয়ান সর্বৈব বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। প্রকৃত সত্য এই যে, সরকার কর্তৃত্ববাদী শাসন অব্যাহত রাখতে রাজনীতিকে নিয়ন্ত্রণ করবার চেষ্টা চালাচ্ছে। গণ-আন্দোলনে ভীত সরকার দমন নিপীড়ন চালিয়ে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে উসকানি-প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে তাণ্ডব সৃষ্টি করছে।’

এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, ‘গতকাল দেশব্যাপী মহানগর ও উপজেলা পর্যায়ে ১০ দফা বাস্তবায়ন ও বিদ্যুতের দাম কমানোর দাবিতে কর্মসূচি পালনের সময় দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকার দমন নিপীড়ন চালানো হয়, প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি, নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ও হামলা চালানো হয়।’

প্রিন্স বলেন, গতকাল চট্টগ্রামে মিছিল পূর্ব সমাবেশ চলাকালে বিনা উসকানিতে পুলিশ সমাবেশে আগত নেতাকর্মীদের ওপর আক্রমণ করে। বেধড়ক লাঠিচার্জ, গুলি, সাউন্ড বোমার হামলায় সমাবেশ পণ্ড করে দেয়। পুলিশের এই সাঁড়াশি অভিযানে ১০ জন গুলিবিদ্ধসহ শতাধিক নেতাকর্মী আহত হন, গ্রেপ্তার করা হয় ২০ জনকে। রাতে পুলিশ চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক শাহ আলম, সদরঘাট থানা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক নুর খানকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাৎ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর, মহানগর যুবদলের সভাপতি মোশাররফ হোসেন দীপ্তি, সাংগঠনিক সম্পাদক এমদাদুল হক বাদশার বাড়িতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গ্রেপ্তারের উদ্দেশে তল্লাশি চালায়। এছাড়া সংবাদ সম্মেলনে দেশের বিভিন্ন স্থানে কর্মসূচি পালনের সময় হামলা ও হতাহতের ঘটনা তুলে ধরেন এমরান সালেহ প্রিন্স।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, স্বেচ্ছাসবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, সহ-গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন, নির্বাহী কমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেন, শেখ শামীম, আবদুস সাত্তার পাটোয়ারী প্রমুখ।