ঢাকা২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থ বানিজ্য
  2. আইন আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আবহাওয়া
  5. ইসলাম
  6. এভিয়েশন
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলা
  9. জব মার্কেট
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশবাংলা
  13. বিনোদন
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল
বিজ্ঞাপন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

রিজার্ভ কমে ৩৪ বিলিয়নের বা ৩ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের নিচে নেমেছে

জনবার্তা প্রতিনিধি
নভেম্বর ৩০, ২০২২ ১১:৩৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

এদিকে ডলার–সংকট কাটাতে ব্যাংকগুলো প্রবাসী আয় দেশে আনতে এখন প্রতি ডলারে সর্বোচ্চ ১০৮ টাকা দর দিচ্ছে। আর রপ্তানি আয় নগদায়নে ডলারের দর ধরা হচ্ছে ১০০ টাকা। ফলে আমদানিতে ডলারের দাম পড়ছে ১০৫-১০৬ টাকা।

ডলার

রিজার্ভ কমে এখন ৩৩ দশমিক ৮৬ বিলিয়ন ডলার হলেও ব্যবহারযোগ্য রিজার্ভ আরও ৮ বিলিয়ন কম। আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) শর্ত মেনে বাংলাদেশ ব্যাংক নতুন করে রিজার্ভের হিসাবায়ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। রিজার্ভ থেকে ৭০০ কোটি ডলার (৭ বিলিয়ন) দিয়ে গঠন করা হয়েছে রপ্তানি উন্নয়ন তহবিল বা ইডিএফ। এ ছাড়া রিজার্ভের অর্থে গঠন করা হয়েছে লং টার্ম ফান্ড (এলটিএফ) ও গ্রিন ট্রান্সফরমেশন ফান্ড (জিটিএফ)।

বাংলাদেশ বিমানকে উড়োজাহাজ কিনতে সোনালী ব্যাংককে রিজার্ভ থেকে অর্থ দেওয়া হয়েছে। আবার পায়রা বন্দরের রাবনাবাদ চ্যানেলের খনন কর্মসূচিতেও রিজার্ভ থেকে অর্থ দেওয়া হয়। সব মিলিয়ে বিভিন্ন তহবিল ও ফান্ডে ব্যবহার করা হয়েছে রিজার্ভের আট বিলিয়ন ডলার।

রিজার্ভ আর কমতে দেওয়া যাবে না

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জার্মান ফেডারেল শিক্ষা ও গবেষণা মন্ত্রণালয়ের প্রকল্প গবেষক জিয়া হাসান। তিনি বলেন, ৩ হাজার কোটি ডলার (৩০ বিলিয়ন) ডলারের কার্যকর রিজার্ভ আছে। সেখানে আবার ঋণপত্রের বিপরীতে আগের দায় আছে ২ হাজার ৩৪০ কোটি ডলারের সমপরিমাণ অর্থ। এগুলো কোভিডের সময় পিছিয়ে দেওয়া ঋণপত্রের দায়। এসব দায় পরিশোধ হলে রিজার্ভ বড় ঝুঁকিতে পড়তে পারে। আর এক বছরে আমদানি ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে ৭১৭ কোটি ডলার।

সেমিনারে আহসান এইচ মনসুর বলেন, ‘আইএমএফের ঋণ নেওয়ার সিদ্ধান্ত সময়োপযোগী। এতে রিজার্ভ সুসংহত হবে। সেই সঙ্গে বাংলাদেশ সম্পর্কে বিদেশি ঋণদাতাদের আস্থা বাড়াবে।’ তিনি আরও বলেন, আইএমএফ ঋণ না দিলে হয়তো বিশ্বব্যাংকের কাছ থেকে ২০-২৫ কোটি ডলারের বেশি বাজেট সহায়তা পাওয়া যেত না। আইএমএফ আছে বলেই বিশ্বব্যাংকের কাছ থেকে বাজেট সহায়তা হিসেবে ১০০ কোটি ডলার পাওয়া যাচ্ছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান এম এম আকাশ বলেন, ‘আমরা সংকটের দিকে যাচ্ছি, যদিও সংকটে এখনো পড়িনি। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ এখনো তিন মাসের আমদানি ব্যয়ের নিচে নেমে যায়নি।’

সেমিনারে অংশ নিয়ে সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার আহসান এইচ মনসুরকে প্রশ্ন করেন, আইএমএফ ঋণের শর্ত হিসেবে সুশাসনের শর্ত দিয়েছে কি না? প্রশ্নের জবাবে আইসান এইচ মনসুর বলেন, ‘যত দূর জানি, এ বিষয়ে তেমন কিছু নেই, এটি দুঃখজনক।’

সেমিনার সঞ্চালনা করেন সাংবাদিক মনির হায়দার।অংশ নেন যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় স্টেট ইউনিভার্সিটির রাজনীতি ও সরকার বিভাগের ডিস্টিংগুইশড প্রফেসর আলী রীয়াজসহ সাংবাদিকেরা।