ঢাকা২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১১ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থ বানিজ্য
  2. আইন আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আবহাওয়া
  5. ইসলাম
  6. এভিয়েশন
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলা
  9. জব মার্কেট
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশবাংলা
  13. বিনোদন
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল
বিজ্ঞাপন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

গাজীপুর মহানগর জামায়াতের গণমিছিল

জনবার্তা প্রতিনিধি
ডিসেম্বর ৩০, ২০২২ ৮:২৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

গাযী খলিলুর রহমান, গাজীপুর মহানগর সংবাদদাতা : গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা,জনগণের ন্যায্য অধিকার আদায়, কেয়ারটেকার সরকার পূনর্বহাল ও আমীরে জামায়াত ডাঃ শফিকুর রহমানসহ সকল রাজবন্দীর মুক্তি এবং ১০ দফা  বাস্তবায়নের  দাবিতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী গাজীপুর মহানগর শাখার উদ্যোগে আজ শুক্রবার সকালে এক গণমিছিল  অনুষ্ঠিত হয়। গণমিছিল উত্তর সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরার সদস্য ও গাজীপুর মহানগর জামায়াতের সেক্রেটারি মোঃ খায়রুল হাসান বলেছেন, প্রিয় মাতৃভূমি  বাংলাদেশ আজ গভীর সংকটের আবর্তে নিমজ্জিত। স্বাধীন দেশে আমরা পরাধীনতার জিঞ্জিরে আবদ্ধ। আমরা আজ চরমভাবে উদ্বিগ্ন এখানকার মানুষের সাংবিধানিক ও নাগরিক অধিকার উপেক্ষিত। স্বাধীনতার ৫০ বছর পার হলেও ভোটের অধিকার, মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও আইনের শাসন ভূলুণ্ঠিত। অর্থনৈতিক মন্দার এক যুগসন্ধিক্ষনে সাধারন মানুষ দু’বেলা ডাল ভাত খেয়ে বেঁচে থাকাটা বড় দায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। অথচ ক্ষমতার মসনদে বসে লুটপাট দুর্নীতি করে দেশ বিদেশে সম্পদের পাহাড় গড়ছে শাসকগোষ্ঠী। কতৃত্ববাদী সরকার ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করতে গুম খুন হামলা মামলা জেল-জুলুম নির্যাতনের পথ বেছে নিয়েছে।

গাজীপুর চৌরাস্তার ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কের মুকুল ফিলিং স্টেশন থেকে শুরু করে পূবালী ব্যাংকের  সামনে গিয়ে মহানগর জামায়াতের  সহকারী সেক্রেটারি মোঃ হোসেন আলীর সঞ্চালনায় মহানগর জামায়াতের সেক্রেটারি মোঃ খায়রুল হাসানের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে গণমিছিল ও সমাবেশ শেষ হয়। গণমিছিলে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর জেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর মাওলানা শেফাউল হক, নগর জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি মোঃ আফজাল হোসাইন, জেলা সেক্রেটারি মোঃ সফি উদ্দিন এবং  মহানগর এবং জেলা  জামায়াতের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ এবং বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী এবং প্রতিবাদী জনতা।

মোঃ খায়রুল হাসান  আরো বলেন, ২০১৮ সালের আজকের এই দিনে ৩০ ডিসেম্বর নিশি রাতে জনগণের ভোটের অধিকার হাইজ্যাক করা হয়েছে। সেই অধিকার অদ্যবধি ফিরে পায়নি জনগণ। তিনি আরো বলেন, গণতন্ত্রকামী শান্তিপ্রিয়  জনতার আন্দোলনকে দমন করতে সরকার পুলিশ বাহিনীকে নিরীহ নিরস্ত্র  জনগণের বিরুদ্ধে ব্যবহার করছে। তিনি আরো বলেন, জনগণের আন্দোলন কখনো ব্যর্থ হয়না। গণতন্ত্র পূণঃরুদ্ধার,জনগণের ন্যায্য অধিকার আদায়,কেয়ারটেকার সরকার পুনর্বহাল এবং জামায়াতের আমীর ডাঃ শফিকুর রহমানসহ সকল রাজবন্দীর মুক্তি এবং ১০ দফা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ইস্পাত কঠিন ঐক্য গড়ে তোলার জন্য তিনি দেশবাসীকে আহবান জানান। তিনি  বিরুধীদলীয় নেতা-কর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি এবং ১৬ কোটি জনতার প্রাণের দাবী নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের  দাবী মেনে নেওয়ার আহবান জানান।