ঢাকা২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থ বানিজ্য
  2. আইন আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আবহাওয়া
  5. ইসলাম
  6. এভিয়েশন
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলা
  9. জব মার্কেট
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশবাংলা
  13. বিনোদন
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল
বিজ্ঞাপন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সরকারকে বিদায় নিতেই হবে: অলি আহমদ

জনবার্তা প্রতিবেদন
জুলাই ২৮, ২০২৩ ৫:৪৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

এই সরকারের ক্ষমতায় থাকার কোনো অধিকার নেই এবং তাদের বিদায় নিতেই হবে বলে মন্তব্য করেছেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) প্রেসিডেন্ট ড. কর্নেল (অব.) অলি আহমদ।

তিনি বলেছেন, ‘বর্তমান অবৈধ সরকার ছলে-বলে-কৌশলে বিভিন্ন অনৈতিক পন্থা অবলম্বন করে দীর্ঘ ১৫ বছর ক্ষমতা দখল করে এদেশ শাসন করছে। তাদের এই শাসন আমল ছিল নীতি-নৈতিকতা বিবর্জিত। ক্ষমতা পাকাপোক্ত এবং ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য দুর্নীতি, মাদক এবং অনৈতিক কর্মকাণ্ড সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে প্রবেশ করার সুযোগ করে দিয়েছে। সমগ্র দেশকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিয়েছে। তাই এই সরকারের ক্ষমতায় থাকার কোনো অধিকার নেই। এখন সময় তাদের বিদায় নেয়ার। বিদায় নিতেই হবে।’

শুক্রবার রাজধানীর পূর্ব পান্থপথে এলডিপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলটির সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অলি আহমদ এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘এই সরকার বিচার ব্যবস্থা, প্রশাসন, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে। জনগণের নেই সাংবিধানিক বা মৌলিক অধিকার। জনগণ হল দেশের মালিক, কিন্তু বর্তমানে আমরা চাকর। কথা বললেই আমরা নির্যাতন এবং নিপীড়নের শিকার। এমনকি জনগণ ভোটের অধিকারও হারিয়ে ফেলেছে। ভোটের মালিক মোক্তার সরকারি কর্মকর্তারা, সরকার কে চালাবে তা সিদ্ধান্ত নেওয়ার মালিক তারাই। রক্ষক এখন ভক্ষক।’

জনগণ এখন বিভিন্ন বাহিনীর হাতে জিম্মি অভিযোগ করে অলি আহমদ বলেন, ‘দেশে প্রকারভেদে আইনের প্রয়োগ, ন্যূনতম অধিকার নিয়ে স্বাধীনভাবে বসবাস করার সুযোগ থেকেও আমরা বঞ্চিত, দেশ এখন মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে। গায়ের জোরে দেশ চলে, আইনের কোনো প্রয়োজন নেই। এভাবে আর কত দিন চলব, ১৮ কোটি মানুষ এভাবে বোকার মত ঘরে বসে থেকে নিঃশেষ হয়ে যাবে, নাকি নিজের অধিকার, ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা এবং গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করার জন্য সোচ্চার হব।’

তিনি দেশবাসীর উদ্দেশে বলেন, ‘আসুন সবাই মিলে দেশকে রক্ষা করি এবং গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করি। হিংসা, প্রতিহিংসা, লোভ-লালসা পরিহার করি। আমাদের দাবি, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু ও পক্ষপাতহীন জাতীয় নির্বাচন। এই লক্ষ্য অর্জনের জন্য বর্তমান সরকারের পদত্যাগ, সংসদ বিলুপ্ত, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন, সবার জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করা, উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠান নিশ্চিত করা, অস্ত্রবাজদের চিহ্নিত করা, তাদের গ্রেপ্তার করা, মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা, খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া, দায়িত্ববোধ ও সুশাসন নিশ্চিত করতে হবে।

এলডিপির মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমদের সভাপতিত্বে সমাবেশে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য নূরুল আলম চৌধুরী, ড. নেয়ামূল বশির, ড. আওরঙ্গজেব বেলাল, অ্যাডভোকেট এসএম মোরশেদ, অধ্যক্ষ সাকলায়েন, ভাইস-প্রেসিডেন্ট মাহে আলম চৌধুরী, উপদেষ্টা অধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান, অধ্যাপিকা কারিমা খাতুন, যুগ্ম-মহাসচিব বিল্লাল হোসেন মিয়াজি, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদুর রহমান রুপা চৌধুরী, আইন সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবুল হাশেম, প্রচার সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিলু, প্রকাশনা সম্পাদক মেহেদী হাসান মাহবুব, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আজগর বাবু, সহ-দপ্তর ওমর ফারুক সুমন, ঢাকা মহানগর পূর্ব এলডিপির সভাপতি মো. সোলায়মান, পশ্চিম এলডিপির সভাপতি সাহাদাত হোসেন মানিক, উত্তর এলডিপির সাধারণ সম্পাদক অবাক হোসেন রনি, গণতান্ত্রিক ওলামা দলের সভাপতি মুফতি মাওলানা সাদিকুর রহমান, গণতান্ত্রিক যুবদলের সভাপতি আমান সোবহান, গণতান্ত্রিক স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি খালিদ বিন জসিম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।